বৃহস্পতিবার ২রা ডিসেম্বর, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ | ১৭ই অগ্রহায়ণ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ

বাসি রুটি দেখে মুখ ফেরাবেন না, টাটকা রুটির চেয়েও উপকারিতা বেশি এর

উত্তরা ডেস্ক   |   রবিবার, ১৭ অক্টোবর ২০২১ | প্রিন্ট

বাসি রুটি দেখে মুখ ফেরাবেন না, টাটকা রুটির চেয়েও উপকারিতা বেশি এর

বাসি খাবার খেলে শরীরে নানা অসুখ বাসা বাঁধতে পারে, এমনটাই ধারণা সবার। এটি অনেকক্ষেত্রে ঠিকও। তাইতো কোনোরকম বাসি খাবার জমলে আমরা ফেলে দেই। এমনকি ফ্রিজে রেখে দিনের পর দিন একই খাবার খেলে তাও অসুখের কারণ হতে পারে। কিন্তু মজার ব্যাপার হলো, এতকিছুর ভিড়ে বাসি রুটি খেলে তো আপনার অপকার হবেই না বরং মিলবে উপকার!

রাতে রুটি খাওয়ার অভ্যাস আছে অনেক বাসায়ই। আর হিসেবমতো গুনেগুনে রুটি কে-ইবা তৈরি করতে পারে! দু-একটা কম-বেশি তো হয়ই। আর তাতেই অতিরিক্ত খাবারটুকু রয়ে যায়। বেশিরভাগ সময়েই আমরা বাসি রুটি ফেলে দেই। কিন্তু নিচের উপকারিতগুলো জানলে আর ফেলবেন না-

শক্তি জোগায়
সকালে একটু আগেভাগে বাসা থেকে বের হতে হলে কিছুই মুখে না দিয়ে বের হয়ে পড়েন অনেকেই। খাবার তৈরি করার সময় না থাকলে দেখুন আগের রাতের রুটি রয়ে গেছে কিনা। থাকলে সেই রুটি নিয়ে এক গ্লাস দুধ দিয়ে খেয়ে নিন। দেখবেন এতে পেট ভর্তিও থাকবে, আবার আপনি অনেক ক্ষণ ধরে এনার্জিও পাবেন।দুধের সঙ্গে বাসি রুটি মিশিয়ে খেলে ডায়াবেটিজ ও রক্তচাপ নিয়ন্ত্রণে থাকে। বাসি রুটিতে কিছু লাভজনক ব্যাক্টিরিয়া উৎপন্ন হয়, যা শরীরের পক্ষে স্বাস্থ্যকর। আবার বাসি রুটি রক্তে গ্লুকোজের পরিমাণও কম করে।

হজমশক্তি বাড়ায়
প্রতিদিন নানা ধরনের খাবার খাওয়ার কারণে হজমে সমস্যা লেগেই থাকে আমাদের। বাসি রুটি খেলে এই হজমের সমস্যার সমাধান হয়। কারণ রুটিতে থাকা ফাইবার সময়ের সঙ্গে সঙ্গে আরও শক্তিশালী হয়।এর ফলে অ্যাসিডিটি, কোষ্ঠ-কাঠিন্যের মতো সমস্যা দূর হয়। বাসি রুটিতে ফাইবার থাকায়, হজমে সাহায্য করে। তাই এবার থেকে বাসি রুটি না ফেলে সকালে খেয়ে নিন।

রক্তচাপ নিয়ন্ত্রণ
বাসি রুটি আমাদের রক্তচাপ নিয়ন্ত্রণের ক্ষেত্রে খুবই উপকারী। ঠান্ডা দুধ দিয়ে বাসি রুটি খেলে শরীরের সোডিয়াম বা লবণের পরিমাণ নিয়ন্ত্রণে থাকে। তাই রক্তচাপও ঠিক থাকে।বিশেষত গরম কালে এটি খেলে স্ট্রোকের ঝুঁকিও কমে যায়।

সৌন্দর্য বৃদ্ধি
বাসি রুটি আমাদের ত্বকের সৌন্দর্য বাড়াতে পারে। কারণ বাসি রুটির মধ্যে থাকা জিঙ্ক শরীরের থেকে টক্সিন দূর করে। সেইসঙ্গে কোলাজেনের উৎপাদন বাড়তে থাকে। তাই ত্বকও হয়ে ওঠে সুন্দর।

ওজন কমায়
বাসি রুটির মধ্যে থাকা ফাইবার অনেকক্ষণ পেট ভরিয়ে রাখে। ফলে আমাদের ক্ষুধা কম পায়। আর ক্ষুধা কম পায় বলে আমরা কম খাই আর আমাদের শরীরের ওজন আর বাড়ে না। তাই ওজন কমাতে চাইলে বাসি রুটি খান।

হার্ট অ্যাটাকের আশঙ্কা কমায়
বাসি রুটির ফাইবার হার্টের কর্মক্ষমতা বাড়িয়ে দেয়। এছাড়া কারডিওভাসকুলার নানা রোগও কম হয়। তাই সার্বিকভাবে হার্ট ভালো থাকে।

অ্যাজমার প্রকোপ কমায়
বাসি রুটির মধ্যে থাকা ম্যাগনেশিয়াম আর ভিটামিন ই অ্যাজমার মতো রোগের প্রকোপ অনেক কমায়। অ্যাজমার সমস্যা থাকলে তাই বাসি রুটি খেয়ে দেখতে পারেন।

শরীর শীতল রাখে
গরমে আপনার শরীর ভিতর থেকে ঠান্ডা রাখতে আপনি বাসি রুটিকে সঙ্গী করতেই পারেন। দেখা গেছে, বাসি রুটি সুন্দরভাবে আমাদের শরীর ঠান্ডা রাখে।

উত্তরা প্রতিদিন/ তৌফিকুল ইসলাম

Facebook Comments Box
advertisement

Posted ১২:৪৬ অপরাহ্ণ | রবিবার, ১৭ অক্টোবর ২০২১

uttaraprotidin.com |

এ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

advertisement
advertisement
advertisement

আর্কাইভ

এনায়েত করিম সম্পাদক (ভারপ্রাপ্ত)
প্রধান কার্যালয়

৫৩০ (২য় তলা), দড়িখরবোনা, উপশহর মোড়, রাজশাহী-৬২০২

ফোন: ০৭২১-৭৬০১৪৩, ০১৯৭৭১০০০২৭

E-mail: uttaraprotidin@gmail.com