রবিবার ১৭ই অক্টোবর, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ | ১লা কার্তিক, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ

রাজশাহীতে জাল করোনা সনদ তৈরি চক্রের হোতাসহ গ্রেপ্তার ৩ 

উত্তরা প্রতিবেদক   |   বৃহস্পতিবার, ০৮ জুলাই ২০২১ | প্রিন্ট

রাজশাহীতে জাল করোনা সনদ তৈরি চক্রের হোতাসহ গ্রেপ্তার ৩ 

ঘরে বসেই করোনা থেকে মুক্তির জাল সনদ তৈরি চক্রের মূলহোতা রাজশাহী সিভিল সার্জন কার্যালয়ের অফিস সহকারী তারেক আহসানসহ (৪১) তিনজনকে গ্রেপ্তার করেছে গোয়েন্দা পুলিশ (ডিবি)। বুধবার দিবাগত রাতে এবং  বৃহস্পতিবার সকালে তাদের গ্রেপ্তার করে রাজশাহী মহানগর পুলিশের (আরএমপি) গোয়েন্দা শাখা।

গ্রেপ্তার তিনজনসহ প্রতারকচক্রের ১৫-২০ সদস্য গত চার মাসে মোটা অঙ্কের টাকা হাতিয়ে নিয়েছে। প্রতারকচক্রের সদস্যদের দ্বারা বিদেশগামী অসংখ্য মানুষ প্রতারিত হয়েছেন।  বৃহস্পতিবার দুপুরে আরএমপি গোয়েন্দা কার্যালয়ে উপ-কমিশনার আরেফিন জুয়েল প্রেস ব্রিফিংয়ে এসব তথ্য জানান।

রাজশাহী সিভিল সার্জন কার্যালয়ের সহায়ক তারেক আহসানসহ আটক অন্যরা হলেন- তার সহযোগী রাজশাহী বক্ষব্যাধি হাসপাতালের অ্যাম্বুলেন্স চালক রফিকুল ইসলাম (৪২) ও তার স্ত্রী সামসুন্নাহার শিখা (৩৮)।

রাজশাহী মহানগর ডিবি কার্যালয়ে প্রেস ব্রিফিংকালে রাজশাহী মহানগর গোয়েন্দা শাখা (ডিবি) পুলিশের উপ-পুলিশ কমিশনার আরেফিন জুয়েল সাংবাদিকদের বলেন, গোয়েন্দা তথ্যের ভিত্তিতে ডিবি পুলিশ জানতে পারে একটি চক্র বিদেশগামী মানুষদের কাছে চড়া দামে করোনা সনদ বিক্রি করছে।

জাল করোনা সনদ দিয়ে এই চক্রটি বিদেশগামী মানুষদের থেকে তিন হাজার থেকে ১৫ হাজার পর্যন্ত টাকা হাতিয়ে নিচ্ছে। করোনা পরীক্ষার সনদে তারা প্রত্যাশীর নাম-ঠিকানা লিখে নেগেটিভ হওয়ার সনদ বানিয়ে দিচ্ছে। তাদের কাছ থেকে উদ্ধার হওয়া অনেক কাগজপত্রে দেখা গেছে তারা রাজশাহী সিভিল সার্জনের স্বাক্ষর পর্যন্ত জাল করেছে!

রাজশাহী মহানগর ডিবি পুলিশের উপ-পুলিশ কমিশনার আরেফিন জুয়েল জানান, এই জাল করোনা সনদ তৈরি চক্রটির মূলহোতা ছিলেন তারেক আহসান। তার সহযোগী রফিকুল ইসলাম। এই দু’জন করোনা নমুনা পরীক্ষা করা মানুষগুলোর তালিকা সংগ্রহ করতেন। এর পরে টাকার দেন-দরবার করতেন রাকিবের স্ত্রী সামসুন্নাহার শিখা।

তিনি করোনার নমুনা দেওয়া মানুষগুলোকে ফোন করে বলতেন- আপনার করোনার রেজাল্ট পজিটিভ এসেছে। টাকা দিলে নেগেটিভ করে দেওয়া হবে।

এ নিয়ে বিভিন্ন জনের সঙ্গে টাকার বিষয়টি মেলাতেন তিনি। পরে মোবাইল ব্যাংকিং বিকাশের মাধ্যেমে টাকা নিতেন তিনি। যেসব বিদেশগামী মানুষ করোনার নমুনা দিতেন, তাদের মাত্র ৪৮ থেকে ৭২ ঘণ্টা সময় থাকে কাগজপত্র জমা দেওয়ার। তাই তারা বেশি চাপে থাকতেন। আর মোক্ষম এই সুযোগটি কাজে লাগাতো এই চক্রটি।

চক্রটি গত চার মাস থেকে করোনা সনদের এই অভিনব প্রতারণা চালিয়ে বিদেশগামী মানুষদের কাছ থেকে টাকা হাতিয়ে নিয়েছে।

ডিবির উপ-কমিশনার আরেফিন জুয়েল আরও জানান, চক্রটির কাছ থেকে ১০০টি করোনা নমুনার জাল সনদ উদ্ধার করা হয়েছে। এই কর্মকাণ্ডে জড়িত থাকা আরও তিন থেকে চারজন বর্তমানে পলাতক রয়েছে।

তাদের গ্রেফতার চেষ্টা অব্যাহত রয়েছে। এছাড়া গ্রেপ্তারদের বিকেলের মধ্যে কারাগারে পাঠানো হবে বলেও জানান ডিবির এই পুলিশ কর্মকর্তা।

এদিকে  বৃহস্পতিবার দুপুরে গ্রেপ্তার তিনজনসহ আরও অজ্ঞাত তিনজনের বিরুদ্ধে প্রতারণামূলক মামলা করা হয়েছে। তাদের আদালতে পাঠানো হয়েছে। আর এ প্রতারকচক্রের আরও সাত থেকে আটজন সদস্যকে শনাক্ত করা হয়েছে। তাদের গ্রেপ্তারের লক্ষ্যে মাঠে নেমেছে গোয়েন্দা পুলিশ।

উত্তরা প্রতিদিন/শাহ্জাদা মিলন

 

Facebook Comments Box
advertisement

Posted ১০:২৮ অপরাহ্ণ | বৃহস্পতিবার, ০৮ জুলাই ২০২১

uttaraprotidin.com |

এ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

advertisement
advertisement
advertisement

আর্কাইভ

এনায়েত করিম সম্পাদক (ভারপ্রাপ্ত)
প্রধান কার্যালয়

৫৩০ (২য় তলা), দড়িখরবোনা, উপশহর মোড়, রাজশাহী-৬২০২

ফোন: ০৭২১-৭৬০১৪৩, ০১৯৭৭১০০০২৭

E-mail: uttaraprotidin@gmail.com