রবিবার ১৭ই অক্টোবর, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ | ১লা কার্তিক, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ

সীমিত পরিসরে রাবি’র ৬৮ তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উদযাপিত

আদিত্য রায় রিপন   |   মঙ্গলবার, ০৬ জুলাই ২০২১ | প্রিন্ট

সীমিত পরিসরে রাবি’র ৬৮ তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উদযাপিত

রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রশাসনিক ভবনের সামনে বেলুন উড়িয়ে অনুষ্ঠানের উদ্বোধন করেন ভারপ্রাপ্ত উপাচার্য প্রফেসর আনন্দ কুমার সাহা সহ অন্যান্য কর্মকর্তাগণ

-উত্তরা প্রতিদিন

মহামারি করোনার কারণে সীমিত পরিসরে উদযাপিত হয়েছে রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের (রাবি) ৬৮তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী ।

প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষে মঙ্গলবার সকাল ১০টায় শহীদ সৈয়দ নজরুল ইসলাম ভবনের সামনে বেলুন ফেস্টুন উড়িয়ে কর্মসূচির উদ্বোধন করেন বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য (রুটিন দায়িত্ব) অধ্যাপক ড. আনন্দ কুমার সাহা। পরে সকাল সাড়ে ১০টায় বিশ্ববিদ্যালয় কৃষি প্রকল্প চত্বরে বৃক্ষরোপণ করা হয়। বেলা ১১টায় ভার্চুয়াল অনলাইনে এক আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়।

উপ-উপাচার্য অধ্যাপক ড. চৌধুরী মো. জাকারিয়ার সভাপতিত্বে সভায় প্রধান অতিথি ছিলেন ভারপ্রাপ্ত ভিসি অধ্যাপক ড. আনন্দ কুমার সাহা। আলোচনা সভায় প্রধান আলোচক ছিলেন বিশিষ্ট অর্থনীতিবিদ অধ্যাপক সনৎ কুমার সাহা।

আলোচক অধ্যাপক সনৎ কুমার সাহা বলেন, ‘এই ৬৮ বছরের চড়াই উৎরাই পেরিয়ে আজ আমরা একটা জায়গায় দাঁড়িয়েছি, যেখানে এই বিশ^বিদ্যালয়ের প্রতিষ্ঠা ও গৌরব দুটোই দেশে বিদেশে স্বীকৃত। এই দীর্ঘ সময়ের সবটাই আমাদের গৌরবের নয়। এই সময়ে বিভিন্ন দ্বন্দ্ব ও দ্বন্দ্ব নিরসন এই প্রক্রিয়ার ভিতর দিতে আমাদের যেতে হয়েছে এবং ভবিষ্যতেও তাই হবে।

কারণ জীবন এককভাবে শুধুই অর্জনের নয়। অর্জন বিসর্জন সব মিলে আমাদের জীবন আর তার একটা বৃহত্তর পরিসর এই বিশ^বিদ্যালয়। ৬৮ বছর আগে রাজশাহী বিশ^বিদ্যালয়ের কোন ক্যাম্পাস ছিল না, বাইরে ভাড়া বাড়িতে থাকতে হতো। কেউ হয়তো কিছুটা করুণাও করত যে এমন একটা উদ্বাস্তু বিশ^বিদ্যালয় কেমন করে দাঁড়াবে?

এই জায়গা থেকে আমাদের বিশ^বিদ্যালয়টি গড়ে উঠেছে। আমার ব্যক্তিগত ধারণা বাংলাদেশের সবচেয়ে সুন্দর ক্যাম্পাস রাজশাহী বিশ^বিদ্যালয়। বর্তমানে বিশ^বিদ্যালয় তার লক্ষ্যে এগিয়ে যাওয়ার জন্য যোগ্য নেতৃত্ব পাচ্ছে এবং এই ৬৮ বছরে বিশ^বিদ্যালয়ের মেধাবী শিক্ষার্থীরা নিজেদের কৃতিত্বের স্বাক্ষর রেখেছেন। শুধু এখানেই নয় বিদেশেও তারা নিজেদের প্রতিষ্ঠিত করেছে। নিজেদের পরিচিত করেছেন। এগুলো আমাদের সার্থকতা। এর মাধ্যমে এটা প্রতিয়মান হয় যে এখানে বিশ^বিদ্যালয় প্রতিষ্ঠার লক্ষ্য জলে যায়নি। এটা সত্যিকার অর্থে উন্নয়নের এবং মানুষের বিকাশের ক্ষেত্র হয়ে দাঁড়িয়েছে। এই তৃপ্তি নিয়েই আমরা আছি এবং ভবিষ্যতেও যেন অক্ষয় থাকে এই প্রার্থনা করি।’

প্রধান অতিথির বক্তব্যে উপাচার্য বলেন, ‘বিগত প্রায় সাত দশক ধরে রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় দেশে উচ্চশিক্ষা ও গবেষণাক্ষেত্রে এক গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করছে। এর শিক্ষার্থীরা দেশে বিদেশে নিজ নিজ কর্মক্ষেত্রে সাফল্য ও উৎকর্ষের স্বাক্ষর রেখে চলেছে। ফলে এই বিশ্ববিদ্যালয় এক বিশেষ মর্যাদা লাভ করেছে। আগামী দিনগুলোতেও সে সফলতার অক্ষুণ্ন থাকবে।’

আলোচনা সভায় অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন, বিশ্ববিদ্যালয়ের রেজিস্ট্রার প্রফেসর ড. আব্দুস সালাম, কোষাধ্যক্ষ প্রফেসর ড. একে এম মোস্তাফিজুর রহমান, ছাত্র উপদেষ্টা, প্রক্টর, প্রাধ্যক্ষবৃন্দ, শিক্ষক, কর্মকর্তা-কর্মচারীবৃন্দ।

প্রতিবছর প্রতিষ্ঠানটির জন্মদিনকে ঘিরে থাকে নানা আয়োজন। ক্যাম্পাস নতুনরূপে সুসজ্জিত হয়ে ওঠে। ক্যাম্পাস জুড়ে ছাত্র শিক্ষকের পদচারণায় তৈরি হয় উৎসবমুখর পরিবেশ। কিন্তু এবার করোনা পরিস্থিতিতে সীমিত পরিসরে ঘরোয়া আয়োজনের মধ্য দিয়ে স্বাস্থ্যবিধি মেনে পালন করা হয় এদিনটিকে।

উত্তরা প্রতিদিন/শাহ্জাদা মিলন

Facebook Comments Box
advertisement

Posted ১০:১৬ অপরাহ্ণ | মঙ্গলবার, ০৬ জুলাই ২০২১

uttaraprotidin.com |

এ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

advertisement
advertisement
advertisement

আর্কাইভ

এনায়েত করিম সম্পাদক (ভারপ্রাপ্ত)
প্রধান কার্যালয়

৫৩০ (২য় তলা), দড়িখরবোনা, উপশহর মোড়, রাজশাহী-৬২০২

ফোন: ০৭২১-৭৬০১৪৩, ০১৯৭৭১০০০২৭

E-mail: uttaraprotidin@gmail.com