বৃহস্পতিবার ২৮শে অক্টোবর, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ | ১২ই কার্তিক, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ

শিরোনাম >>
শিরোনাম >>

গোদাগাড়ীতে বন্দুকযুদ্ধে শিশু ধর্ষণ ও হত্যার আসামি নিহত

গোদাগাড়ী (রাজশাহী) প্রতিবেদক   |   শুক্রবার, ২৫ জুন ২০২১ | প্রিন্ট

গোদাগাড়ীতে বন্দুকযুদ্ধে শিশু ধর্ষণ ও হত্যার আসামি নিহত

রাজশাহীর গোদাগাড়ীতে এক ব্যক্তি ‘বন্দুকযুদ্ধে’ নিহত হয়েছেন। তার নাম শামীম (২১)। তিনি রাজশাহীর মোহনপুর উপজেলার বাউটিয়া এলাকার মৃত শফিকের ছেলে। বৃহস্পতিবার দিবাগত রাত ২টার দিকে গোদাগাড়ী উপজেলার পাকড়ি ইউনিয়নের ললিতনগর এলাকায় বন্দুকযুদ্ধের ঘটনা ঘটে।

রাজশাহী জেলা পুলিশের মুখপাত্র ইফতেখায়ের আলম এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন। তিনি জানান, বৃহস্পতিবার রাতে গোদাগাড়ীর কাঁকনহাট পুলিশ তদন্ত কেন্দ্রের একটি দল টহল দেয়। এ সময় একদল দুষ্কৃতকারী পুলিশের ওপর হামলা চালায়। আত্মরক্ষায় পুলিশ গুলি চালায়। এরপর শুরু হয় বন্দুকযুদ্ধ।

এ সময় গুলিবিদ্ধ অবস্থায় একজন সেখানে পড়ে থাকে। হামলাকারী অন্যরা পালিয়ে যায়। গুলিবিদ্ধ ব্যক্তিকে উদ্ধার করে ভোরে রাজশাহী মেডিকেল কলেজ (রামেক) হাসপাতালে নেয়া হয়। এ সময় চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

তিনি আরও জানান, বন্দুকযুদ্ধের পর রাতে শামীমের পরিচয় জানা যায়নি। সকালে তার পরিচয় নিশ্চিত হওয়া গেছে। শামীমের কাছ থেকে অস্ত্র ও একটি মোবাইল ফোন জব্দ করা হয়েছে।

মোবাইল ফোনের সূত্র ধরে জানা যায়, এটি চুরি করা একটি ফোন। কয়েকদিন আগে গোদাগাড়ীর ললিতনগর ও খুনের শিকার এক শিশুর বাড়ি থেকে ফোনটি চুরি হয়েছিল। তাই ধরে নেয়া হচ্ছে যে, চুরি করতে গিয়ে শামীম ধর্ষণ ও খুনের ঘটনা ঘটিয়েছিল।

গত ১৯ জুন রাতে গোদাগাড়ীর ললিতনগর মাকরান্দা কোয়ার্টারপাড়া এলাকার আনোয়ার হোসেনের চতুর্থ শ্রেণি পড়ুয়া মেয়ে সুমাইয়া খাতুন (১০) ধর্ষণ ও হত্যাকাণ্ডের শিকার হয়। ২০ জুন সকালে আনোয়ারের ভাই রফিকুলের ছাদে সুমাইয়ার লাশ পাওয়া যায়।

আনোয়ারের বাড়ির ছাদ থেকে তার ভাই রফিকুলের বাড়ির ছাদে যাওয়া যায়। সুমাইয়া সেই রাতে একাই ঘুমিয়েছিল। তাকে তুলে ছাদে নিয়ে ধর্ষণ ও হত্যা করা হয়। এ নিয়ে থানায় অজ্ঞাত ব্যক্তির বিরুদ্ধে ধর্ষণ ও হত্যা মামলা করেন নিহত শিশুর দাদা।

এ বিষয়ে গোদাগাড়ীর কাঁকনহাট পুলিশ তদন্ত কেন্দ্রের ইনচার্জ পরিদর্শক মাহমুদুল হাসান বলেন, শামীমের কাছ থেকে সুমাইয়ার চাচাতো বোনের মোবাইল ফোন পাওয়া গেছে। যে রাতে সুমাইয়া ধর্ষণ ও খুনের শিকার হয় সেই রাতেই ফোনটি চুরি হয়েছিল। তাই ধরে নেয়া হচ্ছে- চুরি, ধর্ষণ ও খুনের সঙ্গে শামীম জড়িত ছিল।

তিনি আরও জানান, রাজশাহী মেডিকেল কলেজের মর্গে ময়নাতদন্ত শেষে শামীমের লাশ পরিবারের কাছে হস্তান্তর করা হবে। এই ঘটনায় থানায় একটি মামলা হবে।

উত্তরা প্রতিদিন/একে

Facebook Comments Box
advertisement

Posted ৮:৩৩ অপরাহ্ণ | শুক্রবার, ২৫ জুন ২০২১

uttaraprotidin.com |

এ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

advertisement
advertisement
advertisement

এ বিভাগের আরও খবর

আর্কাইভ

সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র শনি রবি
 
১০১১১২১৩
১৪১৫১৬১৭১৮১৯২০
২১২২২৩২৪২৫২৬২৭
২৮২৯৩০  
এনায়েত করিম সম্পাদক (ভারপ্রাপ্ত)
প্রধান কার্যালয়

৫৩০ (২য় তলা), দড়িখরবোনা, উপশহর মোড়, রাজশাহী-৬২০২

ফোন: ০৭২১-৭৬০১৪৩, ০১৯৭৭১০০০২৭

E-mail: uttaraprotidin@gmail.com