সোমবার ২৯শে নভেম্বর, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ | ১৪ই অগ্রহায়ণ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ

২০ দিনেই ‘পকেট ভেন্টিলেটর’ বানিয়ে তাক লাগালেন ইঞ্জিনিয়ার

বিদেশ ডেস্ক   |   শনিবার, ১২ জুন ২০২১ | প্রিন্ট

২০ দিনেই ‘পকেট ভেন্টিলেটর’ বানিয়ে তাক লাগালেন ইঞ্জিনিয়ার

নিজেও ছিলেন কোভিডে আক্রান্ত। তার রক্তে অক্সিজেনের পরিমাণ ৮৮ শতাংশে নেমে এসেছিল।

সে সময় তাকে হাসপাতালে ভর্তি হতে না হলেও তিনি বুঝতে পেরেছিলেন যে কোভিড আক্রান্ত রোগীদের জন্য ভেন্টিলেটরের মর্ম। করোনা নেগেটিভ হওয়ার পর তাই আর দেরি করেননি এই বিজ্ঞানী। মাত্র ২০ দিনেই রাত-দিন পরিশ্রম করে কোভিড রোগীদের জন্য বানিয়ে ফেলেছেন বিশেষ এই ‘পকেট ভেন্টিলেটর’।

এই পকেট ভেন্টিলেটরের ওজন মাত্র ২৫০ গ্রাম। এটি ছোট হওয়ায় পকেটেই বহন করা সম্ভব। সে কারণেই এর এমন নামকরণ করা হয়েছে। এই ভেন্টিলেটর একবার চার্জ দিলে কমপক্ষে ৮ ঘণ্টা চলে।

সাধারণ মোবাইল চার্জার দিয়েই এটি অনায়াসে চার্জ দেওয়া যাবে। সে কারণে যেখানে সেখানে নিয়ে যাওয়ারও কোনো সমস্যা নেই। রামেন্দ্রলাল মুখোপাধ্যায়ের বিশ্বাস, কোভিড ও মিউকরমাইকোসিস রোগে আক্রান্তদের জন্য ছোট্ট এই ভেন্টিলেটরটি অত্যন্ত কাজে দেবে।

পকেট ভেন্টিলেটরে দু’টি ভাগ রয়েছে। একটি পাওয়ার ইউনিট এবং অন্যটি মাউথ পিস যুক্ত ভেন্টিলেটর ইউনিট। সুইচ অন হলে বাইরের বাতাস যন্ত্রে মজুত আল্ট্রা ভায়োলেট চেম্বার দিয়ে বিশুদ্ধ হয়ে ফুসফুসে পাঠায়। চেম্বারের মধ্যে দিয়ে যাওয়ার সময় বাতাসে কোনো জীবাণু থাকলে তাও মরে যায়।

রোগী যখন নিঃশ্বাস ছাড়েন তখনও একই কায়দায় বাতাসকে আল্ট্রা ভায়োলেটে শুদ্ধ করে ছাড়ে এই যন্ত্র। ফলে ডাক্তার, নার্স বা রোগীর আশপাশে থাকা লোকজনেরও কোনো সমস্যা হবে না। এই যন্ত্রটি হাসপাতালে ব্যবহৃত সিপ অ্যাপ (কন্টিনিউয়াস পজিটিভ এয়ারওয়ে প্রেশার) যন্ত্রের ভালো বিকল্প বলেই জানিয়েছেন ড. রামেন্দ্রলাল।

ভারতে কোভিড পরিস্থিতি ভয়াবহ হয়ে ওঠায় ইতোমধ্যেই ভেন্টিলেটরের সংখ্যা বাড়ানো হয়েছে। কিন্তু তাও সংখ্যায় প্রয়োজনের তুলনায় অপ্রতুল। এই পরিস্থিতিতে রামেন্দ্রলালের এই আবিষ্কার বাড়িতে থাকা রোগীদের জন্য সহায়ক হয়ে উঠবে।

হঠাৎ করে অক্সিজেনের মাত্রা কমতে শুরু করলে কয়েকদিন পর্যন্ত এই যন্ত্রই পরিস্থিতি সামাল দিতে পারবে বলে আশা প্রকাশ করেছেন তিনি। রামেন্দ্রলাল নিজে একজন ইঞ্জিনিয়ার এবং এ ধরনের প্রচুর আবিষ্কার রয়েছে তার। আর করোনা আবহে তার এই পকেট ভেন্টিলেটরকে কোনো বিপ্লবের চাইতে কম নয় বলেই মনে করছে বিশিষ্ট মহল।

উত্তরা প্রতিদিন/এসএম

Facebook Comments Box
advertisement

Posted ৬:১৪ অপরাহ্ণ | শনিবার, ১২ জুন ২০২১

uttaraprotidin.com |

এ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

advertisement
advertisement
advertisement

আর্কাইভ

সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র শনি রবি
 
১০১১১২১৩
১৪১৫১৬১৭১৮১৯২০
২১২২২৩২৪২৫২৬২৭
২৮২৯৩০  
এনায়েত করিম সম্পাদক (ভারপ্রাপ্ত)
প্রধান কার্যালয়

৫৩০ (২য় তলা), দড়িখরবোনা, উপশহর মোড়, রাজশাহী-৬২০২

ফোন: ০৭২১-৭৬০১৪৩, ০১৯৭৭১০০০২৭

E-mail: uttaraprotidin@gmail.com