শনিবার ১৮ই সেপ্টেম্বর, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ | ৩রা আশ্বিন, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ

আম চাষিদের পাশে দাঁড়ান

মোহাম্মদ সোহেল   |   মঙ্গলবার, ০৮ জুন ২০২১ | প্রিন্ট

আম নিয়ে বিপাকে পড়েছেন চাষিরা। সারা বছর অর্থ আর শ্রম ব্যয় করে যে আম ফলিয়েছেন তার ন্যায্য দাম পাচ্ছেন না তারা।

এ বছর দেশে রেকর্ড পরিমাণ আম উৎপাদিত হয়েছে। সাধারণ মানুষের জন্য আম সহজপ্রাপ্য হয়েছে বাড়তি উৎপাদনের সুযোগে। কিন্তু আমের বাজারে ক্রেতা নেই।

আম বাজারে ওঠার শুরুতে রাজশাহী-চাঁপাইনবাবগঞ্জসহ উৎপাদনকারী জেলাগুলোয় করোনার প্রার্দুভাব আশঙ্কাজনক হারে বৃদ্ধি পাওয়ায় বাইরের ক্রেতাদের মধ্যে নেতিবাচক প্রতিক্রিয়া সৃষ্টি করেছে। ভোক্তাদের মনেও ঢুকেছে করোনার ভয়।

এর পাশাপাশি করোনার প্রতিক্রিয়ায় সৃষ্ট অর্থনৈতিক সংকটের। ফলে যে হারে আম বিক্রি হওয়ার কথা সে হারে বিক্রি হচ্ছে না। যে দামে কৃষক আম বিক্রি করছেন তাতে উৎপাদন খরচ ওঠানোই কঠিন হয়ে পড়ছে।

এ অবস্থার জন্য অনেকাংশে দায়ী আম পাকাতে কেমিক্যাল ব্যবহার হয় এমন নেতিবাচক প্রচার। কান চিলে নিয়ে গেছে এ হাঁকডাকে কানে হাত না দিয়ে চিলের পেছনে ছোটাছুটির মতো লোকের অভাব এ দেশে কখনো কম ছিল না। কেমিক্যাল দিয়ে আম পাকালে তা বিষাক্ত হয় এও সর্বাংশে সত্য নয়।

গত তিন-চার বছরের মতো এবারও নেতিবাচক প্রচারের কারণে আম কেনার ব্যাপারে ভোক্তারা সংশয়ে ভুগছেন, যা আম চাষিদের ন্যায্যমূল্য প্রাপ্তিতে ছাই ঢেলেছে। আম উৎপাদন বাড়লেও আম প্রক্রিয়াজাতকরণের শিল্প সেভাবে গড়ে না ওঠায় উৎপাদিত আম কৃষককে বিপাকে ফেলেছে; যা আগামী বছরগুলোয় আম চাষে অনীহা সৃষ্টি করলে অবাক হওয়ার কিছু থাকবে না।

দেশের আম উৎপাদনকারী এলাকায় আম প্রক্রিয়াজাতকরণ কারখানা গড়ে উঠলে এ সমস্যার ইতি ঘটবে। বিশেষ করে আমসত্ত্ব তৈরির মাধ্যমে তা সারা বছর সংরক্ষণ এবং দেশের চাহিদা মিটিয়ে বিদেশে রপ্তানি করাও সম্ভব হবে।

ধান, আলু, আম চাষিরা বাড়তি ফসল উৎপাদন করে প্রায়ই ন্যায্যমূল্য থেকে বঞ্চিত হয় এটি কোনো শুভলক্ষণ নয়। দেশের কৃষি উৎপাদনে মদদ জোগাতে কৃষককে কীভাবে টিকিয়ে রাখা যায় সে বিষয়েও ভাবতে হবে। তাদের উৎপাদিত পণ্যের ন্যায্যমূল্য নিশ্চিত করা জরুরি। পাশাপাশি কৃষিপণ্যের নেতিবাচক প্রচারের ব্যাপারে সবারই সতর্ক থাকা উচিত।

আমরা আশা করব, আম চাষে উৎসাহ জোগাতে উৎপাদনকারী এলাকায় পরবর্তী মৌসুমের আগেই আম প্রক্রিয়াজাত কারখানা গড়ে তোলার উদ্যোগ নেওয়া হবে।

এ ব্যাপারে উদ্যোক্তাদের সহজ শর্তে ঋণদানের কথা ভাবতে হবে। আম নিয়ে প্রতি বছর যাতে চাষিরা বিপাকে না পড়েন সে ব্যাপারে সরকারের সুদৃষ্টি কাম্য। আম পরিবহনে বিশেষ ট্রেনের ব্যবস্থা একটি প্রশংসনীয় উদ্যোগ। এর সুফল যাতে আম চাষিরা পান সে ব্যাপারেও যত্নবান হতে হবে।

উত্তরা প্রতিদিন/একে

Facebook Comments Box
advertisement

Posted ৮:৪৫ অপরাহ্ণ | মঙ্গলবার, ০৮ জুন ২০২১

uttaraprotidin.com |

এ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

advertisement
advertisement
advertisement

আর্কাইভ

সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র শনি রবি
 
১০১১১২১৩
১৪১৫১৬১৭১৮১৯২০
২১২২২৩২৪২৫২৬২৭
২৮২৯৩০  
আব্দুল্লাহ্ আল মাহমুদ বাবলু সম্পাদক
এনায়েত করিম প্রধান বার্তা সম্পাদক
প্রধান কার্যালয়

৫৩০ (২য় তলা), দড়িখরবোনা, উপশহর মোড়, রাজশাহী-৬২০২

ফোন: ০৭২১-৭৬০১৪৩, ০১৯৭৭১০০০২৭

E-mail: uttaraprotidin@gmail.com